বিআরটিএ 'র সড়ক নিরাপত্তা সংক্রান্ত তথ্য-সমূহ:

ক্রমিক শিরোনাম বিস্তারিত
সড়ক পরিবহন ও ট্রাফিক আইন (সংক্ষিপ্ত )
সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ এখানে ক্লিক করুন
জাতীয় স্থল পরিবহন নীতিমালা, ২০০৪ এখানে ক্লিক করুন
মোটর ভেহিক্যাল রুলস্-১৯৮৪ এখানে ক্লিক করুন
করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলি, জীবাণুমুক্ত মাস্ক পরিধান করি ।

ট্রাফিক বিধি ও নীতিমালা অনুযায়ী কিছু গুরুত্বপূর্ণ আইন:

ক্রমিক অপরাধ আইন (দন্ড ও জরিমানা )
ট্র্যাফিক সংকেত না মানলে ৩ মাসের জেল কিংবা ১০,০০০ টাকা জরিমানা অথবা উভয় দন্ডে দন্ডিত হবেন।
রেজিস্ট্রেশনবিহীন গাড়ি চালালে ৬ মাসের জেল কিংবা ৫০,০০০ টাকা জরিমানা অথবা উভয় দন্ডে দন্ডিত হবেন।
ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া গাড়ি চালানো ৬ মাসের জেল কিংবা ২৫,০০০ টাকা জরিমানা।
ভুয়া লাইসেন্স দেখালে ১-৫ লাখ টাকা বা ৬ মাস থেকে ২ বছরের জেল।
রুট পারমিট ছাড়া যানবাহন ৬ মাসের জেল কিংবা ২৫,০০০ টাকা জরিমানা অথবা উভয় দন্ডে দন্ডিত হবেন।
হেলমেট না থাকলে সর্বোচ্চ ১০,০০০ টাকা জরিমানা।
গাড়ির বডি মডিফিকেশন ৩ বছরের জেল কিংবা ৩০০,০০০ টাকা জরিমানা অথবা উভয় দন্ডে দন্ডিত হবেন।
ফিটনেসবিহীন যানবাহন ৬ মাসের জেল কিংবা ২৫,০০০ টাকা জরিমানা অথবা উভয় দন্ডে দন্ডিত হবেন।
নিষিদ্ধ হর্ন বাজানো ৩ মাসের জেল কিংবা ১৫,০০০ টাকা জরিমানা অথবা উভয় দন্ডে দন্ডিত হবেন।
১০ উল্টো পথে গাড়ি চালালে ৩ মাসের জেল কিংবা ১০,০০০ টাকা জরিমানা অথবা উভয় দন্ডে দন্ডিত হবেন।
১১ অবৈধ পার্কিং সর্বোচ্চ ৫,০০০ টাকা জরিমানা।
১২ ওভার স্পিডিং ৩ মাসের জেল কিংবা ১০,০০০ টাকা জরিমানা অথবা উভয় দন্ডে দন্ডিত হবেন।
১৩ চালক ফোন এ কথা বললে সর্বোচ্চ ৫,০০০ টাকা জরিমানা।
১৪ নাবালক বা নাবালিকা গাড়ি চালালে গাড়ির রেজিস্ট্রেশন বাতিল করে দেয়া হবে এবং ২৫ হাজার টাকা জরিমানা বা তিন বছর পর্যন্ত জেল।
১৫ সিটবেল্ট না বাধলে সর্বোচ্চ ৫,০০০ টাকা জরিমানা।
করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলি, জীবাণুমুক্ত মাস্ক পরিধান করি ।

সড়ক নিরাপত্তা সংক্রান্ত সকল সাইন সমূহ :